1. powerofpeopleworld@gmail.com : jashim sarkar : jashim sarkar
  2. jashim_1980@hotmail.com : mohammad uddin : mohammad uddin
শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২, ১২:২৫ অপরাহ্ন

ইন্টারভিউ বোর্ডে গুরুত্বপূর্ণ ৫ প্রশ্ন!

আমরা সকলেই জানি চাকরির জন্য সবথেকে শেষ এবং গুরুত্বপূর্ণ পর্যায় হচ্ছে ইন্টারভিউ। আজ আমরা আলচনা করবো কিছু কমন এবংইন্টারভিউ বোর্ডে গুরুত্বপূর্ণ ৫ প্রশ্ন নিয়ে যে প্রশ্ন গুলো খুবই সহজ, শুধুমাত্র একটু গুছিয়ে উত্তর দিলেয় ইন্টারভিউ বোর্ড আপনার প্রতি আলাদা দৃষ্টি রাখতে বাধ্য হবে। তাহলে চলুন শুরু করা যাক।

আমাদের বাছাই করা পাঁচটা গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্ন হলঃ

১। আপনার নিজের সম্পর্কে কিছু বলুন।

২। আপনি নিজেকে কিভাবে বর্ণনা করতে চান?

৩। আপনি নিজেকে কেন যোগ্য মনে করছেন আমাদের এই চাকরির জন্য?

৪। আপনার কাছে নিজের সবথেকে বড় দুর্বলতা কনটাকে মনে হয়?

৫। আমাদের প্রতিষ্ঠানের সম্পর্কে আপনার কিছু জানার আছে?

আপনার নিজের সম্পর্কে কিছু বলুন

এই প্রশ্নের উত্তরে আপনার তিন(০৩) মিনিটের বেশি নেয়া যাবেনা, সঠিক উত্তরগুলো আপনাকে তিন মিনিটের মাঝেয় শেষ করতে হবে । সাধারনত এই প্রশ্নের উত্তরে চাকরিদাতা আপনার সম্পূর্ণ পরিচয় এবং আপনার পূর্বের কাজ সম্পর্কে ধারনা নিতে চাইবে । এই প্রশ্নের মাধ্যমে চাকরিদাতারা আপনার উপরে কতটা নির্ভর করতে পারবে সেটা ভুঝে যাবেন । আপনি এই প্রশ্নের উত্তরে আপনার পারিবারিক পরিচয়, আপনার পড়াশোনা এবং আপনার কাজের অভিজ্ঞতা তুলে ধরতে হবে । বেশি কথা না বাড়িয়ে অল্প কথার মাঝে একটু গুছিয়ে আপনার উত্তরগুলো দেয়ার চেষ্টা করুন ।

আপনি নিজেকে কিভাবে বর্ণনা করতে চান?

উপরের প্রশ্ন এবং এই প্রশ্নটা প্রায় এক মনে হলেও আপনার উত্তর কিন্তু হবে ভিন্ন । কারন চাকরিদাতারা আপনার কাছে থেকে আলাদা কিছুই জানতে চাচ্ছেন। প্রথম প্রশ্নের উত্তর দেয়া শেষ হবার পরে এই প্রশ্নটা করলে আপনি সময় নিন কিছুটা। বেশি সময় নিবেন না আবার, কারন এই প্রশ্নের উত্তরের মাঝেয় আপনার দক্ষতা, মৌলিক গুণাবলী এবং আপনার ব্যক্তিত্ব সম্পর্কে ধারনা পেতে চান চাকরিদাতারা । তাই এই প্রশ্নের উত্তরে নিজেকে উপস্থাপনের একটা বড় সুযোগ থাকে। আপনি আপনার মাঝে থাকা কিছু ভাল গুণাবলী তুলে ধরুন এবং এই সকল গুণাবলীর সপক্ষে কিছু ঘটনা উপস্থাপনের করুন । নিজের সম্পর্কে ভালো গুণাবলী তুলে ধরার জন্য এই প্রশ্নের উত্তর খুবই কার্যকরী ভূমিকা রাখে।

আপনি নিজেকে কেন যোগ্য মনে করছেন আমাদের এই চাকরির জন্য?

প্রশ্নটা শুনে কিন্তু নিজেকে ছোট মনে করার কিছু নেই। কারন আপনি কিছুটা যোগ্য বলেই ইন্টারভিউ বোর্ড পর্যন্ত গেছেন। এখানে যেহেতু আপনার পরালেখার বর্ণনা এবং সেগুলোর ফলাফল তাদের কাছে আছেই তাই এগুলো বলার প্রয়োজন নেই। এখানে আপনি যে চাকরির জন্য আবেদন করেছেন সেটার সম্পর্কে আপনার অভিজ্ঞতা এবং আপনার দক্ষতাগুলো তুলে ধরুন।

আপনার কাছে নিজের সবথেকে বড় দুর্বলতা কনটাকে মনে হয়?

নিজের সবথেকে বড় দুর্বলতা যখন ইন্টারভিউ বোর্ড জানতে চায় তখন প্রায় সবাই একটু বিভ্রান্তিতে পরে যায়, কারন প্রশ্নটা বেশ কঠিন। এখানে আপনার এতো বেশি কৌশলী উত্তর না দিয়ে খুব সহজ ভাষায় উত্তর দিতে হবে। কারন আমরা মানুষ আর মানুশ হিসেবে প্রায় সকলেরই কিছুটা দুর্বলতা থেকেই যায়। তাই বিভ্রান্তিতে পরার কিছু নেই । আপনি এমন কিছু দুর্বলতার কথা ইন্টারভিউ বোর্ড এর কাছে তুলে ধরুন যেগুলো আপনি যে চাকরির জন্য ইন্টারভিউ দিতে গিয়েছেন সেটার সাথে একদমই মিল নেই। আপনি বলতে পারেন আমি বেশ বাস্তববাদি মানুষ আর এই বাস্তববাদি হবার কারনে জিবনে আপনাকে অনেক সময় সমস্যার সম্মক্ষিন হতে হয়েছে। সাথে এটাও বলুন আপনি কিভাবে আবার সেই সমস্যাগুলো থেকে বের হতে পেরেছেন। আপনার সহজ করে বলা এই কথাগুলো চাকরিদাতা একদম পজিটিভ ভাবে নিবে এটা নিশ্চিত।

আমাদের প্রতিষ্ঠানের সম্পর্কে আপনার কিছু জানার আছে?

আমাদের প্রতিষ্ঠানের সম্পর্কে আপনার কিছু জানার আছে? এই প্রশ্নের উত্তরে আপনাকে একটু কৌশলী হতে হবে। আপনি তাদের এমন ভাবে উত্তরগুলো দিবেন জাতে তারা বুঝতে পারে তাদের প্রতিষ্ঠানে কাজ করার বেপারে আপনি বেশ আগ্রহী । আপনিও এই ক্ষেত্রে চাকরিদাতাদের কিছু প্রশ্ন করতে পারেন, এতে করে আপনার আগ্রহ সম্পর্কে তারা পুরোপুরি নিশ্চিত হবে । প্রশ্নগুলো এরকম হতে পারে,

আপনাদের এই প্রতিষ্ঠানের আগামী পাঁচ(০৫) বছরের পরিকল্পনা কি কি?

আমাকে কয়জনের টিমের সাথে কাজ করতে হবে?

আপনারা আমার কাছে থেকে প্রথম মাসে কাজের জন্য কি প্রত্যাশা করছেন?

আপনাদের এই প্রতিষ্ঠানের কাজের সফলতার সংজ্ঞা কি?

উপরের এই চারটা প্রশ্ন করার পরে চাকরিদাতারা অবশ্যই আপনার প্রতি একটু আলাদা দৃষ্টি রাখবেন।

আরো পড়ুন