1. powerofpeopleworld@gmail.com : jashim sarkar : jashim sarkar
  2. jashim_1980@hotmail.com : mohammad uddin : mohammad uddin
শনিবার, ১৩ অগাস্ট ২০২২, ১১:২৯ পূর্বাহ্ন

পায়ে দুর্গন্ধ যেভাবে এড়াবেন!

মিটিংয়ে মাঝেমধ্যে অন্যের পায়ের দুর্গন্ধের কারণে বসে থাকা দুষ্কর হয়ে যায়। পায়ের গ্রন্থিগুলো থেকে অতিরিক্ত ঘাম নিঃসরণ হলে এমন দুর্গন্ধ হতে পারে। চিকিৎসাবিজ্ঞানের ভাষায়, হাইপার হাইড্রোসিসে ভুগছেন বলে ধরে নেওয়া হয়। শীতকালে এ সমস্যা বেশিই থাকে। বারডেম জেনারেল হাসপাতাল ও ইব্রাহিম মেডিকেল কলেজের চর্ম ও যৌন বিশেষজ্ঞ মীর নজরুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘অতিরিক্ত ঘাম এবং পায়ে দুর্গন্ধ হওয়ার কারণ চিহ্নিত করতে প্রথমেই রোগীর ইতিহাস জেনে নিতে হয়। পায়ে দুর্গন্ধ হওয়ার অন্যতম কারণ অসুখজনিত। ঘাম কমাতে ড্রাই কেয়ার লোশন ব্যবহার করতে পারেন।

যে কারণে পা থেকে দুর্গন্ধ ছড়ায়

দীর্ঘ সময় পা ঘামে ভিজে থাকলে দুর্গন্ধ ছড়াবে। ঘামে ভেজা স্যাঁতসেঁতে ব্যাকটেরিয়ার বিস্তার দ্রুত হয়। সময় বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে দুর্গন্ধও বাড়তে থাকে।সিনথেটিক মোজা পায়ে দুর্গন্ধ বাড়ায়। এসব মোজার ভেতর দিয় বাতাস চলাচল করতে পারে না। আবার ঘাম শোষণেও অকার্যকর।কৃত্রিম চামড়ার জুতা পরলে পায়ে দুর্গন্ধ হওয়ার প্রবণতা বাড়ে। কৃত্রিম চামড়ার ভেতর থেকে বাতাস চলাচল করতে না পারার কারণে পা ঘেমে যায় দ্রুত।ফ্যাশনের জন্য অনেকেই কনভার্স কিংবা স্নিকার মোজা ছাড়াই পরেন। ঘামে ভিজে জুতার ভেতরটাই স্যাঁতসেঁতে ও নোংরা হয়ে থাকে। এভাবেও দুর্গন্ধ ছড়াতে পারে।পায়ের যত্নে উদাসিনতা কিংবা আলস্যের কারণে পায়ে নানা ধরনের রোগ হয় এবং উপসর্গ হিসেবে দুর্গন্ধ ছড়ায়।

এড়ানোর উপায়

বিব্রতকর এই দুর্গন্ধ কেমন করে এড়ানো যায়, জানতে চাইলে ল্যাব এইড হাসপাতালের ক্লিনিক্যাল ডার্মাটোলজিস্ট মো. কামরুল হাসান চৌধুরী বলেন, এই সমস্যা এড়াতে ই পায়ের যত্ন নেওয়া খুব জরুরি। সাধারণ সাবান দিয়ে পা পরিষ্কার করার চাইতে গ্লিসারিনযুক্ত ময়েশ্চারাইজিং সাবান দিয়ে পা পরিষ্কার করলে পরিস্থিতির দ্রুত উন্নতি হতে পারে। পা পরিষ্কারের পরে ত্বকের সুরক্ষায় ইউরিয়াযুক্ত ময়েশ্চারাইজিং লোশন মেখে নিলে ত্বক ভালো থাকবে। এতে ত্বকে ব্যাকটেরিয়ার বিস্তারও হবে কম। দুর্গন্ধও ছড়াবে না।

এক জোড়া জুতা প্রতিদিন না পরে জুতা বদল করে পরুন। জুতা বদ্ধ জায়গায় না রেখে আলো–বাতাস চলাচল করে এমন স্থানে রাখুন।আসল চামড়ার জুতা ব্যবহার করুন। প্রাকৃতিক চামড়ায় একধরনের ছিদ্র থাকে। এই পথে বাতাস চলাচল করে জুতার ভেতরের পরিবেশ স্বাস্থ্যসম্মত রাখে।

দীর্ঘ সময় জুতা বা মোজা পরে না থেকে মাঝেমধ্যে জুতা খুলে পায়ের পাতায় বাতাস লাগালে দুর্গন্ধ হওয়ার শঙ্কা কমবে।মোজা পরার আগে অ্যান্টি–ব্যাকটেরিয়াল পাউডার লাগিয়ে নিতে পারেন।

বাড়ি ফিরে কুসুম গরম পানিতে পা ভিজিয়ে রাখতে পারেন। স্ক্র্যাব করে মৃত কোষগুলো সরিয়ে ফেলুন। দুর্গন্ধ কমবে। যাঁদের ডায়াবেটিস আছে, পায়ের প্রতি তাঁদের আরও বেশি সতর্ক হতে হবে। দুর্গন্ধ দূর করতে সুতির মোজা পরতে হবে। প্রতিদিনই বদলাতে হবে মোজা। পায়ের প্রতি যত্নবান হলে দুর্গন্ধ সহজেই এড়ানো যায়। আজকাল বাজারে পায়ের দুর্গন্ধ এড়ানোর সুগন্ধি পাওয়া যায়। সেগুলোও ব্যবহার করতে পারেন।

লেখক: চিকিৎসক

আরো পড়ুন