1. [email protected] : jashim sarkar : jashim sarkar
  2. [email protected] : mohammad uddin : mohammad uddin
শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৩৪ অপরাহ্ন

“প্রকৌশলীদের নিজে কিছু করতে হবে চাকরির পরিবর্তে” !

দেশের বহু বিশ্ববিদ্যালয়ে অনেক বিষয়ে ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ানো হচ্ছে। তবে তারা কোনো ছাত্র-ছাত্রীকে উদ্যোক্তা হতে শেখায় না। চাকরি করা শেখায়। বর্তমানের উদীয়মান ও তরুণ প্রকৌশলীদের চাকরি ভুলে উদ্যোক্তা হতে হবে। শাহবাগে আজ দেশের সবচেয়ে বড় ফুলের মার্কেট।এই ফুলের মার্কেটের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন একজন প্রকৌশলী।

কোথাও চাকরি না পেয়ে একটি দোকান দিয়েছিলেন। পরে ফুল অনেক বিক্রি হওয়া দেখে অন্যরাও দোকান বসানো শুরু করেন। এর মধ্যে চাকরি হওয়ায় প্রতিষ্ঠাতা দোকান বন্ধ করে চাকরিতে যোগদান করলেন।

এখন কোনো ইঞ্জিনিয়ারিং প্রতিষ্ঠান উদ্যোক্তা হতে শেখায় না। তারা চাকরি করা শেখায়।এখন ধান চাষের জন্য নতুন নতুন মেশিন তৈরি করছে বগুড়ার মানুষ। আবার একটি মেশিন বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। সেটার অবিকল যন্ত্রাংশ তৈরি করছে ঢাকার ধোলাইরপাড়ের কারিগররা।

এই মেধাগুলোর পাশে যদি কোনো প্রফেশনাল প্রকৌশলী গিয়ে দাঁড়াতো। তারা যদি এই ব্যবসা শুরু করতো তাহলে অবশ্যই বাংলাদেশ শিল্পে অনেক উন্নত হতো। আজকের তরুণ প্রকৌশলীদের দেখতে হবে মার্কেট আছে কোথায়। খুঁজে খুঁজে সে মার্কেটকে জয় করতে হবে। ব্যবসাকে জয় করতে হবে। এসব ব্যবসার জন্য অনেক সময় পার্টনারশিপ প্রয়োজন হয়। কারণ অনেক অর্থ ইনভেস্টের বিষয় রয়েছে।

তবে বাস্তবতা হলো বাংলাদেশের মানুষের মধ্যে পার্টনারশিপ বেশিদিন টেকে না।

আরো পড়ুন