1. [email protected] : jashim sarkar : jashim sarkar
  2. [email protected] : mohammad uddin : mohammad uddin
মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৩:৫৯ অপরাহ্ন

প্রাইমারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ ৫৭৭টি প্রশ্ন-উত্তর ২০১৮ !

প্রশ্নঃ ২০ ফুট লম্বা একটি বাঁশ এমনভাবে কেটে দু’ভাগ করা হলো যেন ছোট অংশ বড় অংশের দুই তৃতীয়াংশ হয়, ছোট অংশের দৈর্ঘ্য কত ফুট?

উত্তরঃ ৮

প্রশ্নঃ ঘড়িতে এখন ৮টা বাজে। ঘণ্টার কাঁটা ও মিনিটের কাঁটার মধ্যকার কোণটি হলো

উত্তরঃ ১২০°

প্রশ্নঃ একটি পঞ্চভুজের সমষ্টি

উত্তরঃ ৬ সমকোণ

প্রশ্নঃ বিষমবাহু ΔABC-এর বাহুগুলির মান এমনভাবে নির্ধারিত যে, AD মধ্যমা দ্বারা গঠিত ΔABD-এর ক্ষেত্রফল x বর্গমিটার। ΔABC-এর ক্ষেত্রফল কত?

উত্তরঃ 2x বর্গমিটার

প্রশ্নঃ x + y = 2, x 2 + y 2 = 4 হলে x 3 + y 3 = কত?

উত্তরঃ 8

প্রশ্নঃ A = {1, 2, 3} B = ∅ হলে A ∪ B = কত?

উত্তরঃ {1, 2, 3}

প্রশ্নঃ ( 5(n 2) 35*(5(n-1)) )/4*5n এর মান কত?

উত্তরঃ 8

প্রশ্নঃ আমার কক্ষে এক বৃদ্ধ দম্পতি ও তাদের সাথে দুই দম্পতি প্রত্যেকে দুইজন করে সন্তানসহ আমার কক্ষে প্রবেশ করলেন। আমার কক্ষে মোট কতজন লোক হল?

উত্তরঃ ১১

প্রশ্নঃ ০.০৩, ০.১২, ০.৪৮, — শূন্যস্থানে সংখ্যাটি কত হবে?

উত্তরঃ ১.৯২

প্রশ্নঃ ১৭ দিন আগে আবদুর রহিম বলেছিল যে তার জন্মদিন “আগামীকাল”। আজ ২৩ তারিখ হলে তার জন্মদিন কোন তারিখে?

উত্তরঃ ৭

প্রশ্নঃ মামুন 240 টাকায় একই রকম কতগুলি কলম কিনে দেখল যে, যদি সে একটি কলম বেশি পেত তাহলে প্রতিটি কলমের মূল্য 1 টাকা কত পড়ত। সে কতগুলি কলম কিনেছিল?

উত্তরঃ 15 টি

প্রশ্নঃ একটি শ্রেণিতে যতজন ছাত্র-ছাত্রী আছে প্রত্যেকে তত পয়সার চেয়ে আরও 25 পয়সা বেশি করে চাঁদা দেওয়ায় মোট 75 টাকা উঠল। ঐ শ্রেণির ছাত্র-ছাত্রী সংখ্যা কত?

উত্তরঃ 75

প্রশ্নঃ তিনটি ক্রমিক সংখ্যার গুণফল তাদের যোগফলের ৫ গুন; সংখ্যা তিনটির গড় কত?

উত্তরঃ ৪

প্রশ্নঃ √169 is equal to –

উত্তরঃ 13

প্রশ্নঃ কোন সংখ্যার ০.১পৌনোপৌনিক ভাগ এবং ০.১ ভাগের মধ্যে পার্থক্য ১.০ হলে, সংখ্যাটি কত?

উত্তরঃ ৯০

প্রশ্নঃ তিন সদস্যেরএকটি বিতর্কদলের সদস্যদেরগড়বয়স২৪বছর।যদি কোনো সদস্যের বয়সই২১বছরের নিচে না হয় তবে তাদের কোনএক জনের সর্বোচ্চ বয়স কত হতেপারে ?

উত্তরঃ ৩০বছর

প্রশ্নঃ একটিসমকোণীত্রিভ জেরলম্বভূমিঅ বড়।অতিভুজেরদৈর কত ?

উত্তরঃ ১০সে:মি:

প্রশ্নঃ একটি সাবানের আকার ৫ সে:মি:× ৪ সে:মি:× ১.৫ সে:মি: হলে ৫৫ সে:মি: দৈর্ঘ্য, ৪৮সে:মি: প্রস্থ এবং ৩০ সে:মি: উচ্চতাবিশিষ্ট

একটি বাক্সের মধ্যে কতটি সাবান রাখা যাবে ?

উত্তরঃ ২৬৪০টি

প্রশ্নঃ যদি সেট A = {5,15,20,30} এবং B = {3,5,15,18,20} হয় তবে নীচের কোনটি A ∩ B নির্দেশ করবে ?

উত্তরঃ {5, 15, 20

প্রশ্নঃ 4x+4x+4x+4x এর মান নিচের কোনটি ?

উত্তরঃ 22x+2

প্রশ্নঃ ৫ জন তাঁত শ্রমিক ৫ দিনে ৫টি কাপড় বুনতে পারে। একই ধরনের ৭টি কাপড় বুনতে ৭ জন শ্রমিকের কত দিন লাগবে ?

উত্তরঃ ৫দিন

প্রশ্নঃ 3x-8 = 32 হলে x এর মান কত ?

উত্তরঃ 2

প্রশ্নঃ একটি ত্রিভুজের দু’টি কোণের পরিমাণ ৩৫° ও ৫৫° । ত্রিভুজটি কোন ধরনের ?

উত্তরঃ সমকোণী

প্রশ্নঃ একটি আয়তকার ঘরের প্রস্থ তার দৈর্ঘ্যর ২/৩অংশ।ঘরটির পরিসীমা ৪০ মিটার হলে তার ক্ষেত্রফল কত ?

উত্তরঃ ৯৬বর্গমিটার

প্রশ্নঃ৩সে:মি:, ৪সে:মি: ও৫সে:মি: বাহু বিশিষ্ট তিনটি ঘনক গলিয়ে নূতন একটি ঘনক তৈরি করা হল। নূতন ঘনকের বাহুর দৈর্ঘ্য কত হবে ?

উত্তরঃ ৬সে:মি:

প্রশ্নঃ একটি রম্বসের কর্ণদ্বয়ের দৈর্ঘ্য ৮ সে:মি: ও ৯ সে:মি: ।এই রম্বসের ক্ষেত্রফলের সমান ক্ষেত্র বিশিষ্ট বর্গক্ষেত্রের পরিসীমা কত ??

উত্তরঃ ২৪সে:মি:

প্রশ্নঃ x এবং y উভয়ই বিজোড় সংখ্যা হলে কোনটি জোড় সংখ্যা হবে?

উত্তরঃ x+y

প্রশ্নঃ ৭ সে. মি. ব্যাসার্ধ বিশিষ্ট বৃত্তের অন্ত লিখিত বর্গক্ষেত্রের ক্ষেত্র কত?

উত্তরঃ ৯৮ ব.সে.মি.

প্রশ্নঃ কোনো ত্রিভুজের তিনটি বাহুকে বর্ধিত করলে উৎপন্ন বহি:স্থ কোন তিনটির সমষ্টি কত?

উত্তরঃ ৩৬০º

প্রশ্নঃ ১,৩,৬,১০,১৫,২১…….. ধারাটির দশম কত?

উত্তরঃ ৫৫

প্রশ্নঃ x²-8x-8y+16+y² এর সাথে কত যোগ করলে যোগফল একটি পূর্ণ বর্গ হবে?

উত্তরঃ 2xy

প্রশ্নঃ টাকায় ৩টি করে লেবু কিনে টাকায় ২টি করে বিক্রি করলে শতকরা কত লাভ হবে?

উত্তরঃ ৫০%

প্রশ্নঃ বৃত্তের ব্যস তিনগুণ বৃদ্ধি পেলে ক্ষেত্রফল কতগুণ বৃদ্ধি পাবে?

উত্তরঃ ৯ গুণ

প্রশ্নঃ একটি গাড়ির চাকা প্রতি মিনিট ৯০ বার ঘোরে। ১ সেকেন্ডে চাকাটি কত ডিগ্রি ঘরবে?

উত্তরঃ ৫৪০º

প্রশ্নঃ ABCD চতুর্ভুজে ABΙΙCD, AC= BD এবং ∠A=90º হলে সঠিক চতুর্ভুক কোনটি?

উত্তরঃ আয়তক্ষেত্র

প্রশ্নঃ কোন ভগ্নাংশটি ক্ষুদ্রতম?

উত্তরঃ ১১/১৪

প্রশ্নঃ পর পর তিনটি সংখ্যার গুণফল ১২০ হলে তাদের যোগফল কত?

উত্তরঃ ১৫

প্রশ্নঃ ০. ৪৭ׂকে সাধারণ ভগ্নাংশে পরিনত করলে কত হবে?

উত্তরঃ ৪৩/৯০

প্রশ্নঃ x²-y²+2y-1 এর একটি উৎপাদক-

উত্তরঃ x+y-1

প্রশ্নঃ log28= কত?

উত্তরঃ 3

প্রশ্নঃ x³+x²y, x²y+xy² এর ল,সা,গু কত?

উত্তরঃ x²y(x+y)

প্রশ্নঃ একটি আয়াতকার ঘরের দৈর্ঘ্য গ্রস্থ অপেক্ষা ৪ মিটার বেশি। ঘরটির পরিসীমা ৩২ মিটার হলে ঘরটির দৈর্ঘ কত?

উত্তরঃ ১০ মিটার

প্রশ্নঃ একটি সমবাহু ত্রিভুজের বাহুর প্রত্যেকটির দৈর্ঘ্য 2মিটার বাড়লে এর ক্ষেত্রফল 3√3 বর্গ মিটার বেড়ে যায়। সমবাহু ত্রিভুজের বাহুর দৈর্ঘ্য কত?

উত্তরঃ 2 মিটার

প্রশ্নঃ সেট A={x€N : x²>8, x²<30} হলে x এর সঠক মান কোনটি?

উত্তরঃ 3

প্রশ্নঃ ৩, ৯ ও ৪ এর চতুর্থ সমানুপাতিক কত?

উত্তরঃ ১২

প্রশ্নঃ ১৩¾ % এর সমান—

উত্তরঃ ০.১৩৭৫

প্রশ্নঃ একটি মিনারের পাদদেশ হতে ২০ মিটার দূরের একটি স্থান হতে মিনারটি কোণ ৩০° হ্লে মিনারটির উচ্চতা কত?

উত্তরঃ √৩/২০ মিটার

প্রশ্নঃ কোন ত্রিভুজের বাহুগুলোর অনুপাত নিচের কোনটি হলে সমকোণী ত্রিভুজ অংকন সম্ভব হবে?

উত্তরঃ ৩:৫:৪

প্রশ্নঃ দুটি ত্রিভুজের পরস্পর সর্বসম হওয়ার জন্য নিচের কোনটি যথেষ্ট নয়?

উত্তরঃ একটির তিন কোণ অপরটির তিন কোণের সমান

প্রশ্নঃ a+b=7 এবং a²+b²=25 নিচের কোনটি ab এর মান হবে?

উত্তরঃ 12

প্রশ্নঃ নিম্নের কোনটি বৃত্তের সমীকরণ?

উত্তরঃ x²+y²=16

১. ৬% হারে ৯ মাসে ১০০০০ টাকার সুদ কত হবে-৪৫০ টাকা সবার আগে আপডেট পেতে পেইজে লাইক দিন

২.৪২৫ টাকার ৪ বছরের সুদ ৮৫ টাকা হলে বার্ষিক সুদের হার কত হবে-৫%

৩. ০ হতে ৯৯ পর্যন্ত সংখ্যাসমূহের যোগফল কত = ৪৯৫০

৪. # টাকায় টাকা আনে কোন কারকে কোন বিভক্তি=অপাদানে ৭মী

৫. #টাকায় কিনা হয় কোন বিভক্তি=করণে ৭মী

৬. Have কোন tense =present

7. Birds of a feather means=person of same nature

8.One of the girls—-present=was

9.Ram__before I came=had left

10.ERP stands for=Enterprise Resource Planning

১. ৬% হারে ৯ মাসে ১০০০০ টাকার সুদ কত হবে-৪৫০ টাকা

২.৪২৫ টাকার ৪ বছরের সুদ ৮৫ টাকা হলে বার্ষিক সুদের হার কত হবে-৫%

৩. ০ হতে ৯৯ পর্যন্ত সংখ্যাসমূহের যোগফল কত = ৪৯৫০

৪. #টাকায় টাকা আনে কোন কারকে কোন বিভক্তি=অপাদানে ৭মী

৫. #টাকায় কিনা হয় কোন বিভক্তি=করণে ৭মী

৬. Have কোন tense =present

7. Birds of a feather means=person of same nature

8.One of the girls—-present=was

9.Ram__before I came=had left

10.ERP stands for=Enterprise Resource Planning

অকাল কুষ্মাণ্ড = (অপদার্থ, অকেজো)

সবার আগে আপডেট পেতে পেইজে লাইক দিন

অক্কা পাওয়া = (মারা যাওয়া)

অগস্ত্য যাত্রা = (চির দিনের জন্য প্রস্থান)

অগাধ জলের মাছ = (সুচতুর ব্যক্তি)

অর্ধচন্দ্র = (গলা ধাক্কা)

অন্ধের যষ্ঠি = (একমাত্র অবলম্বন)

অন্ধের নড়ি = (একমাত্র অবলম্বন)

অগ্নিশর্মা = (নিরতিশয় ক্রুদ্ধ)

অগ্নিপরীক্ষা =(কঠিন পরীক্ষা)

অগ্নিশর্মা = (ক্ষিপ্ত)

অগাধ জলের মাছ = (খুব চালাক)

অতি চালাকের গলায় দড়ি = (বেশি চাতুর্যর পরিণাম)

অতি লোভে তাঁতি নষ্ট = (লোভে ক্ষতি)

অদৃষ্টের পরিহাস = (বিধির বিড়ম্বনা)

অর্ধচন্দ্র দেওয়া = (গলা ধাক্কা দিয়ে দেয়া)

অষ্টরম্ভা = (ফাঁকি)

অথৈ জলে পড়া = (খুব বিপদে পড়া)

অন্ধকারে ঢিল মারা = (আন্দাজে কাজ করা)

অমৃতে অরুচি = (দামি জিনিসের প্রতি বিতৃষ্ণা)

অন্ধকারে ঢিল মারা = (আন্দাজে কাজ করা)

অকূল পাথার = (ভীষণ বিপদ)

অনুরোধে ঢেঁকি গেলা = (অনুরোধে দুরূহ কাজ সম্পন্ন করতে সম্মতি দেয়া)

অদৃষ্টের পরিহাস = (ভাগ্যের নিষ্ঠুরতা)

অল্পবিদ্যা ভয়ংকরী = (সামান্য বিদ্যার অহংকার)

অনধিকার চর্চা = (সীমার বাইরে পদক্ষেপ)

অরণ্যে রোদন = (নিষ্ফল আবেদন)

অহিনকুল সম্বন্ধ = (ভীষণ শত্রুতা)

অন্ধকার দেখা = (দিশেহারা হয়ে পড়া)

অমাবস্যার চাঁদ = (দুর্লভ বস্তু)

আকাশ কুসুম = (অসম্ভব কল্পনা)

আকাশ পাতাল =(প্রভেদ) (প্রচুর ব্যবধান)

আকাশ থেকে পড়া = (অপ্রত্যাশিত)

আকাশের চাঁদ = (আকাঙ্ক্ষিত বস্তু)

আগুন নিয়ে খেলা = (ভয়ঙ্কর বিপদ)

আগুনে ঘি ঢালা = (রাগ বাড়ানো)

আঙুল ফুলে কলাগাছ = (অপ্রত্যাশিত ধনলাভ)

আঠার আনা = (সমূহ সম্ভাবনা)

আদায় কাঁচকলায় = (তিক্ত সম্পর্ক)

আহ্লাদে আটখানা = (খুব খুশি)

আক্কেল সেলামি = (নির্বুদ্ধিতার দণ্ড)

আঙুল ফুলে কলাগাছ = (হঠাৎ বড়লোক)

আকাশের চাঁদ হাতে পাওয়া = (দুর্লভ বস্তু প্রাপ্তি)

আদায় কাঁচকলায় = (শত্রুতা)

আদা জল খেয়ে লাগা = (প্রাণপণ চেষ্টা করা)

আক্কেল গুড়ুম = (হতবুদ্ধি, স্তম্ভিত)

আমড়া কাঠের ঢেঁকি = (অপদার্থ)

আকাশ ভেঙে পড়া = (ভীষণ বিপদে পড়া)

আমতা আমতা করা = (ইতস্তত করা, দ্বিধা করা)

আটকপালে = (হতভাগ্য)

আঠার মাসের বছর = (দীর্ঘসূত্রিতা)

আলালের ঘরের দুলাল = (অতি আদরে নষ্ট পুত্র)

আকাশে তোলা = (অতিরিক্ত প্রশংসা করা)

আষাঢ়ে গল্প = (আজগুবি কেচ্ছা)

ইঁদুর কপালে = (নিতান্ত মন্দভাগ্য)

ইঁচড়ে পাকা = (অকালপক্ব)

ইলশে গুঁড়ি = (গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি)

ইতর বিশেষ = (পার্থক্য)

উত্তম মধ্যম = (প্রহার)

উড়নচন্ডী = (অমিতব্যয়ী)

উভয় সংকট = (দুই দিকেই বিপদ)

উলু বনে মুক্ত ছড়ানো = (অপাত্রে/

অস্থানে মূল্যবান দ্রব্য প্রদান)

উড়ো চিঠি = (বেনামি পত্র)

উড়ে এসে জুড়ে বসা = (অনধিকারীর অধিকার)

উজানে কৈ = (সহজলভ্য)

উদোর পিণ্ডি বুধোর ঘাড়ে = (একের দোষ অন্যের ঘাড়ে চাপানো)

ঊনপাঁজুড়ে = (অপদার্থ)

ঊনপঞ্চাশ বায়ু = (পাগলামি)

এক ক্ষুরে মাথা মুড়ানো = (একই স্বভাবের)

এক চোখা = (পক্ষপাতিত্ব, পক্ষপাতদুষ্ট)

এক মাঘে শীত যায় না = (বিপদ এক বারই আসে না, বার বার আসে)

এলোপাতাড়ি = (বিশৃঙ্খলা)

এসপার ওসপার = (মীমাংসা)

একাদশে বৃহস্পতি = (সৌভাগ্যের বিষয়)

এক বনে দুই বাঘ = (প্রবল প্রতিদ্বন্দ্বী)

এক ক্ষুরে মাথা মুড়ানো = (একই দলভুক্ত)

এলাহি কাণ্ড = (বিরাট আয়োজন)

ওজন বুঝে চলা = (অবস্থা বুঝে চলা)

ওষুধে ধরা = (প্রার্থিত ফল পাওয়া)

কচুকাটা করা = (নির্মমভাবে ধ্বংস করা)

কচু পোড়া = (অখাদ্য)

কচ্ছপের কামড় = (যা সহজে ছাড়ে না)

কলম পেষা = (কেরানিগিরি)

কলুর বলদ = (এক টানা খাটুনি)

কথার কথা = (গুরুত্বহীন কথা)

কাঁঠালের আমসত্ত্ব = (অসম্ভব বস্তু)

কাকতাল = (আকস্মিক/দৈব যোগাযোগজাত ঘটনা)

কপাল ফেরা = (সৌভাগ্য লাভ)

কত ধানে কত চাল = (হিসেব করে চলা)

কড়ায় গণ্ডায় = (পুরোপুরি)

কান খাড়া করা =(মনোযোগী হওয়া)

কানকাটা (নির্লজ্জ)

কান ভাঙানো (কুপরামর্শ দান)

কান ভারি করা (কুপরামর্শ দান)

কাপুড়ে বাবু (বাহ্যিক সাজ)

কেউ কেটা (গণ্যমান্য)

কেঁচে গণ্ডুষ (পুনরায় আরম্ভ)

কেঁচো খুড়তে সাপ (বিপদজনক পরিস্থিতি)

কই মাছের প্রাণ (যা সহজে মরে না)

কুঁড়ের বাদশা (খুব অলস)

কাক ভূষণ্ডী (দীর্ঘজীবী)

কেতা দুরস্ত (পরিপাটি)

কাছা আলগা (অসাবধান)

কাঁচা পয়সা (নগদ উপার্জন)

কাঁঠালের আমসত্ত্ব (অসম্ভব বস্তু)

কূপমণ্ডুক (সীমাবদ্ধ জ্ঞান সম্পন্ন, ঘরকুনো)

কেতা দুরস্ত (পরিপাটি)

কাঠের পুতুল (নির্জীব, অসার)

কথায় চিঁড়ে ভেজা (ফাঁকা বুলিতে কার্যসাধন)

কান পাতলা (সহজেই বিশ্বাসপ্রবণ)

কাছা ঢিলা (অসাবধান)

কুল কাঠের আগুন (তীব্র জ্বালা)

কেঁচো খুড়তে সাপ (সামান্য থেকে অসামান্য পরিস্থিতি)

কেউ কেটা (সামান্য)

কেঁচে গণ্ডুষ (পুনরায় আরম্ভ)

কৈ মাছের প্রাণ (যা সহজে মরে না)

খয়ের খাঁ (চাটুকার)

খণ্ড প্রলয় (ভীষণ ব্যাপার)

খাল কেটে কুমির আনা (বিপদ ডেকে আনা)

গড্ডলিকা প্রবাহ (অন্ধ অনুকরণ)

গদাই লস্করি চাল (অতি ধীর গতি, আলসেমি)

গণেশ উল্টানো (উঠে যাওয়া, ফেল মারা)

গলগ্রহ (পরের বোঝা স্বরূপ থাকা)

গরজ বড় বালাই (প্রয়োজনে গুরুত্ব)

গরমা গরম (টাটকা)

গরিবের ঘোড়া রোগ (অবস্থার অতিরিক্ত অন্যায় ইচ্ছা)

গুর খোঁজা (তন্ন তন্ন করে খোঁজা)

গুরু মেরে জুতা দান (বড় ক্ষতি করে সামান্য ক্ষতিপূরণ)

গাছে কাঁঠাল গোঁফে তেল (প্রাপ্তির আগেই আয়োজন)

গা ঢাকা দেওয়া (আত্মগোপন)

গায়ে কাঁটা দেওয়া (রোমাঞ্চিত হওয়া)

গাছে তুলে মই কাড়া (সাহায্যের আশা দিয়ে সাহায্য না করা)

গায়ে ফুঁ দিয়ে বেড়ানো (কোনো দায়িত্ব গ্রহণ না করা)

গুরু মারা বিদ্যা (যার কাছে শিক্ষা তারই উপর প্রয়োগ)

গোকুলের ষাঁড় (স্বেচ্ছাচারী লোক)

গোঁয়ার গোবিন্দ (নির্বোধ অথচ হঠকারী)

গোল্লায় যাওয়া (নষ্ট হওয়া, অধঃপাতে যাওয়া)

গোবর গণেশ (মূর্খ)

গোলক ধাঁধা (দিশেহারা)

গোঁফ খেজুরে (নিতান্ত অলস)

গোড়ায় গলদ (শুরুতে ভুল)

গৌরচন্দ্রিকা (ভূমিকা)

গৌরীসেনের টাকা (বেহিসাবী অর্থ)

গুড়ে বালি (আশায় নৈরাশ্য)

ঘর ভাঙানো (সংসার বিনষ্ট করা)

ঘাটের মরা (অতি বৃদ্ধ)

ঘোড়া রোগ (সাধ্যের অতিরিক্ত সাধ)

ঘোড়া ডিঙিয়ে ঘাস খাওয়া (মধ্যবর্তীকে অতিক্রম করে কাজ করা)

ঘোড়ার ঘাস কাটা (অকাজে সময় নষ্ট করা)

ঘোড়ার ডিম (অবাস্তব)

ঘরের খেয়ে বনের মোষ তাড়ানো (নিজ খরচে পরের বেগার খাটা)

ঘাটের মড়া (অতি বৃদ্ধ)

ঘটিরাম (আনাড়ি হাকিম)

চক্ষুদান করা (চুরি করা)

চক্ষুলজ্জা (সংকোচ)

চর্বিত চর্বণ (পুনরাবৃত্তি)

চাঁদের হাট (আনন্দের প্রাচুর্য)

চিনির বলদ (ভারবাহী কিন্তু ফল লাভের অংশীদার নয়)

চোখের বালি (চক্ষুশূল)

চোখের পর্দা (লজ্জা)

চোখ কপালে তোলা (বিস্মিত হওয়া)

চোখ টাটানো (ঈর্ষা করা)

চোখে ধুলো দেওয়া (প্রতারণা করা)

চোখের চামড়া (লজ্জা)

চুনকালি দেওয়া (কলঙ্ক)

চশমখোর (চক্ষুলজ্জাহীন)

চোখের মণি (প্রিয়)

চামচিকের লাথি (নগণ্য ব্যক্তির কটূক্তি)

চিনির পুতুল (শ্রমকাতর)

চুঁনোপুটি (নগণ্য)

চুলোয় যাওয়া (ধ্বংস)

চিনে/ছিনে জোঁক (নাছোড়বান্দা)

ছ কড়া ন কড়া (সস্তা দর)

ছা পোষা (অত্যন্ত গরিব)

ছাই ফেলতে ভাঙা কুলা (সামান্য কাজের জন্য অপদার্থ ব্যক্তি)

ছেলের হাতের মোয়া (সামান্য বস্তু)

ছুঁচো মেরে হাত গন্ধ করা (নগণ্য স্বার্থে দুর্নাম অর্জন)

ছক্কা পাঞ্জা (বড় বড় কথা বলা)

ছিঁচ কাদুনে (অল্পই কাঁদে এমন)

ছিনিমিনি খেলা (নষ্ট করা)

ছেলের হাতের মোয়া (সহজলভ্য বস্তু)

জগাখিচুড়ি পাকানো (গোলমাল বাধানো)

জিলাপির প্যাঁচ (কুটিলতা)

জলে কুমির ডাঙায় বাঘ (উভয় সঙ্কট)

ঝড়ো কাক (বিপর্যস্ত)

ঝাঁকের কৈ (এক দলভুক্ত)

ঝিকে মেরে বউকে বোঝানো (একজনের মাধ্যমে দিয়ে অন্যজনকে শিক্ষাদান)

ঝোপ বুঝে কোপ মারা (সুযোগ মত কাজ করা)

টনক নড়া (চৈতন্যোদয় হওয়া)

টাকার কুমির (ধনী ব্যক্তি)

টেকে গোঁজা (আত্মসাৎ করা)

টুপভুজঙ্গ (নেশায় বিভোর)

ঠাঁট বজায় রাখা (অভাব চাপা রাখা)

ঠোঁট কাটা (বেহায়া)

ঠগ বাছতে গাঁ উজাড় (আদর্শহীনতার প্রাচুর্য)

ঠুঁটো জগন্নাথ (অকর্মণ্য)

ঠেলার নাম বাবাজি (চাপে পড়ে কাবু)

ডুমুরের ফুল (দুর্লভ বস্তু)

ডাকের সুন্দরী (খুবই সুন্দরী)

ডুমুরের ফুল (দুর্লভ বস্তু)

ডান হাতের ব্যাপার (খাওয়া)

ডামাডোল (গণ্ডগোল)

ঢাক ঢাক গুড় গুড় (গোপন রাখার চেষ্টা)

ঢাকের কাঠি (মোসাহেব, চাটুকার)

ঢাকের বাঁয়া (অপ্রয়োজনীয়)

ঢেঁকির কচকচি (বিরক্তিকর কথা)

ঢি ঢি পড়া (কলঙ্ক প্রচার হওয়া)

ঢিমে তেতালা (মন্থর)

তালকানা (বেতাল হওয়া)

তাসের ঘর (ক্ষণস্থায়ী)

তামার বিষ (অর্থের কু প্রভাব)

তালপাতার সেপাই (ক্ষীণজীবী)

তিলকে তাল করা (বাড়িয়ে বলা)

তুলসী বনের বাঘ (ভণ্ড)

তুলা ধুনা করা (দুর্দশাগ্রস্ত করা)

তুষের আগুন (দীর্ঘস্থায়ী ও দুঃসহ যন্ত্রণা)

তীর্থের কাক (প্রতীক্ষারত)

থ বনে যাওয়া (স্তম্ভিত হওয়া)

থরহরি কম্প (ভীতির আতিশয্যে কাঁপা)

দা-কুমড়া (ভীষণ শত্রুতা)

দহরম মহরম (ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক)

দু মুখো সাপ (দু জনকে দু রকম কথা বলে পরস্পরের মধ্যে শত্রুতা সৃষ্টিকারী)

দিনকে রাত করা (সত্যকে মিথ্যা করা)

দুধে ভাতে থাকা (খেয়ে-পড়ে সুখে থাকা)

দেঁতো হাসি (কৃত্তিম হাসি)

দাদ নেওয়া (প্রতিশোধ নেয়া)

দুকান কাটা (বেহায়া)

দুধের মাছি (সু সময়ের বন্ধু)

ধরাকে সরা জ্ঞান করা (সকলকে তুচ্ছ ভাবা)

ধড়া-চূড়া (সাজপোশাক)

ধরাকে সরা জ্ঞান করা (অহঙ্কারে সবকিছু তুচ্ছ মনে করা)

ধর্মের ষাঁড় (যথেচ্ছাচারী)

ধর্মের কল বাতাসে নড়ে (সত্য গোপন থাকে না)

ধরি মাছ না ছুঁই পানি (কৌশলে কার্যাদ্ধার)

ননীর পুতুল (শ্রমবিমুখ)

নয় ছয় (অপচয়)

নাটের গুরু (মূল নায়ক)

নাড়ি নক্ষত্র (সব তথ্য)

নিমক হারাম (অকৃতজ্ঞ)

নিমরাজি (প্রায় রাজি)

নামকাটা সেপাই (কর্মচ্যূত ব্যক্তি)

নথ নাড়া (গর্ব করা)

নেই আঁকড়া (একগুঁয়ে)

নগদ নারায়ণ (কাঁচা টাকা/নগদ অর্থ)

নেপোয় মারে দই (ধূর্ত লোকের ফল প্রাপ্তি)

পটল তোলা (মারা যাওয়া)

পগার পার (আয়ত্তের বাইরে পালিয়ে যাওয়া)

পটের বিবি (সুসজ্জিত)

পত্রপাঠ (অবিলম্বে/সঙ্গে সঙ্গে)

পালের গোদা (দলপতি)

পাকা ধানে মই (অনিষ্ট করা)

পাখিপড়া করা (বার বার শেখানো)

পাততাড়ি গুটানো (জিনিসপত্র গোটানো)

পাথরে পাঁচ কিল (সৌভাগ্য)

পুঁটি মাছের প্রাণ (যা সহজে মরে যায়)

পুকুর চুরি (বড় রকমের চুরি)

পুরোনো কাসুন্দি ঘাঁটা (পুরোনো প্রসঙ্গে কটাক্ষ করা)

পোঁ ধরা (অন্যকে দেখে একই কাজ করা)

পোয়া বারো (অতিরিক্ত সৌভাগ্য)

প্রমাদ গোণা (ভীত হওয়া)

পায়াভারি (অহঙ্কার)

পরের মাথায় কাঁঠাল ভাঙা (অপরকে দিয়ে কাজ উদ্ধার)

পরের ধনে পোদ্দারি (অন্যের অর্থের যথেচ্ছ ব্যয়)

ফপর দালালি (অতিরিক্ত চালবাজি)

ফুলবাবু (বিলাসী)

ফেউ লাগা (আঠার মতো লেগে থাকা)

ফুলের ঘাঁয়ে মূর্ছা যাওয়া (অল্পে কাতর)

ফোড়ন দেওয়া (টিপ্পনী কাটা)

বক ধার্মিক (ভণ্ড সাধু)

বইয়ের পোকা (খুব পড়ুয়া)

বগল বাজানো (আনন্দ প্রকাশ করা)

বজ্র আঁটুনি ফসকা গেরো (সহজে খুলে যায় এমন)

বসন্তের কোকিল (সুদিনের বন্ধু)

বিড়াল তপস্বী (ভণ্ড সাধু)

বর্ণচোরা আম (কপট ব্যক্তি)

বরাক্ষরে (অলক্ষুণে)

বাজারে কাটা (বিক্রি হওয়া)

বালির বাঁধ (অস্থায়ী বস্তু)

বাঁ হাতের ব্যাপার (ঘুষ গ্রহণ)

বাঁধা গৎ (নির্দিষ্ট আচরণ)

বাজখাঁই গলা (অত্যন্ত কর্কশ ও উঁচু গলা)

বাড়া ভাতে ছাই (অনিষ্ট করা)

বায়াত্তরে ধরা (বার্ধক্যের কারণে কাণ্ডজ্ঞানহীন)

বিদ্যার জাহাজ (অতিশয় পণ্ডিত)

বিশ বাঁও জলে (সাফল্যের অতীত)

বিনা মেঘে বজ্রপাত (আকস্মিক বিপদ)

বাঘের দুধ/ চোখ (দুঃসাধ্য বস্তু)

বিসমিল্লায় গলদ (শুরুতেই ভুল)

বুদ্ধির ঢেঁকি (নিরেট মূর্খ)

ব্যাঙের আধুলি (সামান্য সম্পদ)

ব্যাঙের সর্দি (অসম্ভব ঘটনা)

ভরাডুবি (সর্বনাশ)

ভস্মে ঘি ঢালা (নিষ্ফল কাজ)

ভাদ্র মাসের তিল (প্রচণ্ড কিল)

ভানুমতীর খেল (অবিশ্বাস্য ব্যাপার)

ভাল্লুকের জ্বর (ক্ষণস্থায়ী জ্বর)

ভাঁড়ে ভবানী (নিঃস্ব অবস্থা)

ভূতের ব্যাগার (অযথা শ্রম)

ভূঁই ফোড় (হঠাৎ গজিয়ে ওঠা)

ভিজে বিড়াল (কপটাচারী)

ভূশন্ডির কাক (দীর্ঘজীবী)

মগের মুল্লুক (অরাজক দেশ)

মণিকাঞ্চন যোগ (উপযুক্ত মিলন)

মন না মতি (অস্থির মানব মন)

মড়াকান্না (উচ্চকণ্ঠে শোক প্রকাশ)

মাছের মায়ের পুত্রশোক (কপট বেদনাবোধ)

মিছরির ছুরি (মুখে মধু অন্তরে বিষ)

মুখ চুন হওয়া (লজ্জায় ম্লান হওয়া)

মুখে দুধের গন্ধ (অতি কম বয়স)

মুস্কিল আসান (নিষ্কৃতি)

মেনি মুখো (লাজুক)

মাকাল ফল (অন্তঃসারশূণ্য)

মশা মারতে কামান দাগা (সামান্য কাজে বিরাট আয়োজন)

মুখে ফুল চন্দন পড়া (শুভ সংবাদের জন্য ধন্যবাদ)

মেছো হাটা (তুচ্ছ বিষয়ে মুখরিত)

যক্ষের ধন (কৃপণের ধন)

যমের অরুচি (যে সহজে মরে না)

রত্নপ্রসবিনী (সুযোগ্য সন্তানের মা)

রাঘব বোয়াল (সর্বগ্রাসী ক্ষমতাবান ব্যক্তি)

রাবণের চিতা (চির অশান্তি)

রাশভারি (গম্ভীর প্রকৃতির)

রাই কুড়িয়ে বেল (ক্ষুদ্র সঞ্চয়ে বৃহৎ)

রাজা উজির মারা (আড়ম্বরপূর্ণ গালগল্প)

রাবণের গুষ্টি (বড় পরিবার)

রায় বাঘিনী (উগ্র স্বভাবের নারী)

রাজ যোটক (উপযুক্ত মিলন)

রাহুর দশা (দুঃসময়)

রুই-কাতলা (পদস্থ বা নেতৃস্থানীয় ব্যক্তি)

লেফাফা দুরস্ত (বাইরের ঠাট বজার রেখে চলেন যিনি)

লগন চাঁদ (ভাগ্যবান)

ললাটের লিখন (অমোঘ ভাগ্য)

লাল পানি (মদ)

লাল বাতি জ্বালা (দেউলিয়া হওয়া)

লাল হয়ে যাওয়া (ধনশালী হওয়া)

লেজে গোবরে (বিশৃঙ্খলা)

শকুনি মামা (কুটিল ব্যক্তি)

শাঁখের করাত (দুই দিকেই বিপদ)

শাপে বর (অনিষ্টে ইষ্ট লাভ)

শিকায় ওঠা (স্থগিত)

শিঙে ফোঁকা (মরা)

শিবরাত্রির সলতে (একমাত্র সন্তান)

শিরে সংক্রান্তি (বিপদ মাথার ওপর)

শুয়ে শুয়ে লেজ নাড়া (আলস্যে সময় নষ্ট করা)

শরতের শিশির (সুসময়ের বন্ধু)

শত্রুর মুখে ছাই (কুদৃষ্টি এড়ানো)

শ্রীঘর (কারাগার)

ষাঁড়ের গোবর (অযোগ্য)

ষোল আনা (পুরোপুরি)

ঘোল কলা (পুরোপুরি)

সবুরে মেওয়া ফলে (ধৈর্যসুফল মিলে)

সরফরাজি করা (অযোগ্য ব্যক্তির চালাকি)

সাত খুন মাফ (অত্যধিক প্রশ্রয়)

সাত সতের (নানা রকমের)

সাপের ছুঁচো গেলা (অনিচ্ছায় বাধ্য হয়ে কাজ করা)

সেয়ানে সেয়ানে (চালাকে চালাকে)

সবে ধন নীলমণি (একমাত্র অবলম্বন)

সাতেও নয়, পাঁচেও নয় (নির্লিপ্ত)

সাপের পাঁচ পা দেখা (অহঙ্কারী হওয়া)

সোনায় সোহাগা (উপযুক্ত মিলন)

সাক্ষী গোপাল (নিষ্ক্রিয় দর্শক)

সখাত সলিলে (ঘোর বিপদে পড়া)

সব শেয়ালের এক রা (ঐকমত্য)

হাটে হাঁড়ি ভাঙা (গোপন কথা প্রকাশ করা)

হাতটান (চুরির অভ্যাস)

হ য ব র ল (বিশৃঙ্খলা)

হরি ঘোষের গোয়াল (বহু অপদার্থ ব্যক্তির সমাবেশ)

হরিলুট (অপচয়)

হস্তীমূর্খ (বুদ্ধিতে স্থূল)

হাড়ে দুর্বা গজানো (অত্যন্ত অলস হওয়া)

হাতুড়ে বদ্যি (আনাড়ি চিকিৎসক)

হাতের পাঁচ (শেষ সম্বল)

হীরার ধার (অতি তীক্ষ্ণবুদ্ধি)

হোমরা চোমরা (গণ্যমান্য ব্যক্তি)

হিতে বিপরীত (উল্টো ফল)

হাড় হদ্দ (নাড়ি নক্ষত্র/সব তথ্য)

হাড় হাভাতে (হতভাগ্য)

হালে পানি পাওয়া (সুবিধা করা)

১.বাংলা গদ্যের জনক কে?

ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর

সবার আগে আপডেট পেতে পেইজে লাইক দিন

২.বাংলা গদ্যের পথিকৃৎ কে?

উইলিয়াম কেরি

৩.বাংলা গদ্য রীতির প্রবর্তক কে?

প্রমথ চৌধুরী

৪.বাংলা সাহিত্যে মুক্তক ছন্দের প্রবর্তক কে?

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

৫.বাংলা ছোট গল্পের জনক কে?

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর

৬.বাংলা মুদ্রন শিল্পের জনক কে?

চালর্স উইলকিনস

৭.সর্বপ্রথম বাংলা অক্ষর খোদাই করেন কে?

চালর্স উইলকিনস

৮.বাঙালীদের মধ্যে সর্বপ্রথম প্রথম বাংলা অক্ষর খোদাই করেন কে?

পঞ্চানন কর্মকার

৯.বাংলা বর্ণমালার স্থায়ীরূপ প্রদান করেন কে?

ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর

১০.সর্বপ্রথম প্রকাশিত বাংলা পত্রিকার নাম কী?

দিকদর্শন

১১,দিকদর্শন পত্রিকাটি কত সালে প্রকাশিত হয়?

১৮১৮ সালে এপ্রিল মাস

১২.সর্বপ্রথম প্রকাশিত বাংলা পত্রিকার নাম কী?

রংপুর বার্তাবহ

১৩.রংপুর বার্তাবহ কোথা থেকে প্রকাশিত হয়?

রংপুর থেকে

১। শালবন বিহার কোথায় অবস্থিত? [৩৩ তম প্রিলিমিনারি] [১০ম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ কুমিল্লা জেলার ময়নামতি ও লালমাই পাহাড়ের মাঝখানে অবস্থিত।

২। উত্তরা গণভবন কোথায় অবস্থিত? [১৯ তম প্রিলিমিনারি] [১০ম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ নাটোরের দিঘাপাতিয়া নামক স্থানে অবস্থিত।

৩। পাহাড়তলী কী জন্য বিখ্যাত? [১০ম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ রেলের ইঞ্জিন ও বগি মেরামতের জন্য। এটি চট্টগ্রামে অবস্থিত।

৪। সন্তোষ কী জন্য বিখ্যাত? [১০ম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ কাগমারী সম্মেলন এখানে অনুষ্ঠিত হয়। এটি টাঙ্গাইলে অবস্থিত।

৫। ‘শেষের কবিতা’ কে লিখেছেন? [১০ম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। এটি একটি কাব্যধর্মী উপন্যাস।

৬। ’ব্যাথার দান’ কে লিখেছেন? [১০ম বিসিএস লিখিত]

উত্তরঃ কাজী নজরুল ইসলাম। এটি একটি গল্পগ্রন্থ।

৭। জাতীয় ‘সংহতি দিবস’ কবে? [১০ম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ ৭ নভেম্বর।

৮। জাতীয় ‘শোক দিবস’ কবে? [১০ম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ ১৫ আগস্ট।

৯। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কখন স্থাপিত হয়? [১০, ১৩ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ ৬ জুলাই ১৯৫৩ সালে।

১০। বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় কখন স্থাপিত হয়? [১০ম বিসিএস লিখিত]

উত্তরঃ ১৯৬১ সালে।

১১। চন্দ্রঘোনা কাগজের কলে কোন প্রধান কাঁচামাল ব্যবহৃত হয়? [১০ম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ বাঁশ ও কাঠ।

১২। পাকশী কাগজের কলে কোন প্রধান কাঁচামাল ব্যবহৃত হয়? [১০ম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ আখের ছোবরা।

১৩। গারো উপজাতীয়রা কোথায় বসবাস করে? [১০ম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ ময়মনসিংহে।

১৪। খাসিয়া উপজাতীয়রা কোথায় বসবাস করে? [১০ম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ সিলেটে।

১৫। পিএটিসি এর প্রধানক কর্মকর্তাকে কী বল হয়? [১০ম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ রেকটর।

১৬। বাংলাদেশ স্কাউটস এর প্রধান কর্মকর্তাকে কী বলা হয়? [১০ম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ কমিশনার।

১৭। বাংলাদেশ বিমান সংস্থার নিয়ন্ত্রনকারী মন্ত্রণালয়ের নাম কী? [১০ম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ বেসামরিক বিমান ও পর্য্টন মন্ত্রণালয়।

১৮। চিনি ও খাদ্য সংস্থা কোন মন্ত্রণালয়ের অধিনে? [১০ম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ শিল্প মন্ত্রণালয়।

১৯। মুঘলরা ঢাকা শহরের নাম কী দেয়? [১০ম বিসিএস লিখিত]

উত্তরঃ জাহাঙ্গীরনগর।

২০। মুঘলরা চট্টগ্রামের কী নাম দেয়? [১০ম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ ইসলামাবাদ।

২১। BIISS এর পূর্ণরূপ কী? [১০ম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ Bangladesh Institute of International and Strategic Studies.

২২। BIRDEM এর পূর্ণরূপ কী? [১০ম বিসিএস লিখিত]

উত্তরঃ Bangladesh Institute of Research and Rehabilitation in Diabetic Endocrine and Metabolic Disorder.

২৩। বাংলাদেশে বর্তমানে মেডিকেল কলেজ কয়টি? [১০, ১৩ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ ৮৩ টি। ২৯টি সরকারি এবং ৫৪ টি বেসরকারি।(এটির আপডেট লাগবে)

২৪। বাংলাদেশে বর্তমানে ক্যাডেট কলেজ কয়টি? [১০, ১৩ তম বিসিএস লিখিত]

উত্তরঃ ১২ টি।

২৫। ’হারমণি’ লোকসাহিত্য সংকলনগ্রন্থের লেখক কে? [১১ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ মুহম্মদ মনসুর উদ্দীন।

২৬। বড়ু চণ্ডীদাসের কাব্যের নাম কী? [১১ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ শ্রীকৃষ্ণকীর্তন।

২৭। জয়দেবের কাব্যের নাম কী? [১১ তম বিসিএস লিখিত]

উত্তরঃ গীতগোবিন্দ।

২৮। শিল্প ও সাহিত্যের কোন শাখায় হুমায়ূন আহমেদ বিখ্যাত ছিলেন? [১১ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ উপন্যাসে।

২৯। শিল্প ও সাহিত্যের কোন শাখায় এসএম সুলতান বিখ্যাত ছিলেন? [১১ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ চিত্রকলায়।

৩০। ‘দুরন্ত’ এর ভাস্কর কে? [১১ তম বিসিএস লিখিত]

উত্তরঃ রাশা।

৩১। ‘জননী’ এর ভাস্কর কে? [১১ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ ভিনসেন্ট ভ্যানগগ।

৩২। ‘হাজার বছর ধরে’ উপন্যাসের রচয়িতা কে? [১১ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ জহির রায়হান।

৩৩। ‘অশ্রুমালা’ এর রচয়িতা কে? [১১ তম বিসিএস লিখিত]

উত্তরঃ কায়কোবাদ।

৩৪।সর্বপ্রথম কোন দেশ বাংলাদেশকে স্বাধীন দেশ হিসেবে স্বীকৃতি দেয়? [১১তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃভুটান আগে তারপর ভারত। (৬ডিসেম্বর)।

৩৫। বাংলাদেশ কখন জাতিসংঘের সদস্যপদ লাভ করে? [১১ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ ১৭ সেপ্টেম্বর ১৯৭৪ সালে।

৩৬। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম মুসলিম উপাচার্য্ কে? [১১ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ স্যার এ এফ রহমান।

৩৭। ঢাকার বিখ্যাত তাঁরা মসজিদের নির্মাতা কে? [১১ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ মির্জা আহমেদ খান।

৩৮। ঢাকার বড় কাটারার নির্মাতা কে? [১১ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ শাহ সুজা।

৩৯। শাহ সুলতান বলখীর মাজার কোথায়? [১১ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ বগুড়ার মহাস্থানগড়ে।

৪০। বাবা আদম শহীদের মাজার কোথায়? [১১ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ বগুড়ার আদমদীঘিতে।

৪১। আয়তনের দিক থেকে বাংলাদেশের বৃহত্তম জেলা কোনটি? [১১ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ রাঙ্গামাটি।

৪২। আয়তনের দিক থেকে বাংলাদেশের ক্ষুদ্রতম জেলা কোনটি? [১১ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ নারায়নগঞ্জ।

৪৩। বাংলাদেশে নদীভিক্তিক থানা কয়টি? [১১ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ ১০ টি।( আপডেট লাগবে)

৪৪। ‘শেষের কবিতা’ কোন শ্রেণির সাহিত্যকর্ম? [১৩ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ কাব্যধর্মী উপন্যাস।

৪৫। ‘কালের কলস’ কোন শ্রেণির সাহিত্যকর্ম? [১৩ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ কাব্যগ্রন্থ। লেখক আল মাহমুদ।

৪৬। জসীমউদদীন ব্যাতীত অন্য কোন দু’জন কবির কবিতায় বাংলার গ্রামজীবনের চিত্র রূপায়িত হয়েছে? উত্তরঃ জীবনানন্দ দাস ও বন্দে আলী মিয়া।

৪৭। ‘পদ্মাবতী’র রচয়িতা কে? [১৩ তম বিসিএস লিখিত]

উত্তরঃ পদ্মাবতী কাব্যের রচয়িতা আলাওল, পদ্মাবতী নাটকের রচয়িতা মাইকেল মধুসূদন দত্ত, পদ্মাবতী সমালোচনামূলক গ্রন্থের রচয়িতা সৈয়দ আলী আহসান।

৪৮। ‘জমিদার দর্পণ’ নাটকের রচয়িতা কে? [১৩ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ মীর মশাররফ হোসেন।

৪৯। বাংলাদেশের জাতীয় স্মৃতিসৌধের স্থাপতি কে? [১৩ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ সৈয়দ মইনুল হোসেন।

৫০। পাকিস্থান কখন বাংলাদেশকে স্বাধীন দেশ হিসেবে স্বীকৃতি দেয়? [১৩ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ ২৩ সেপ্টেম্বর ১৯৭৪।

৫১। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালযের প্রথম উপাচার্যের নাম কী? [১৩ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ স্যার পি. জে. হার্টজ।

৫২। কার্জন হল কখন নির্মিত হয়? [১৩ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ ১৯০৪ সালের ১৯ ফেব্রুয়ারি।

৫৩। ময়নামতি কেন বিখ্যাত? [১৩ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ প্রাচীন বৌদ্ধসভ্যতার জন্য।

৫৪। ১৯০৫ সালে ঢাকাকে রাজধানী করে যে নতুন প্রদেশ গঠিত হয় তার নাম কী? [১৩ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ পূর্ব বঙ্গ ও আসাম।

৫৫। নতুন প্রদেশ পূর্ববঙ্গ ও আসামের প্রাদেশিক গভর্নর কে ছিলেন? [১৩ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ স্যার ব্যামফিল্ড ফুলার। (তখন সমগ্র ভারেতর গভর্নর ছিলেন—লর্ড কার্জন)

৫৬। বাংলাদেশের প্রধান দু’টি রপ্তানিপণের নাম কী কী? [১৩ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ তৈরি পোশাক ও পাট।

৫৭। বাংলাদেশ কোন দেশ থেকে সবচেয়ে বেশি পণ্য আমদানি করে? [৩৭ তম প্রিলি] [১৩ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ চীন।

৫৮। বাংলাদেশের মৃত্তিকাকে কয় ভাগে ভাগ করা যেতে পারে? [১৫ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ ৪ ভাগে।

৫৯। বাংলাদেশের জাতীয় স্মৃতিস্থম্ভ কয়টি? [১৫ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ ৫ টি।

৬০। কোন কোন পানিতে গলদা এবং বাগদা চিংড়ি চাষ করতে হয়? [১৫ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ স্বাদু ও স্বচ্ছ পানিতে গলদা চিংড়ি এবং লবণাক্ত পানিতে বাগদা চিংড়ি চাষ কর হয়।

৬১। বাংলাদেশ ব্যাংকের শাখা অফিস কয়টি? [১৫ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ ১০ টি।

৬২। বাংলাদেশে মোট কত মাইল সমুদ্র উপকূল রয়েছে? [১৫ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ ৪৫০ মাইল। (৭২৪ কি. মি.) ।

৬৩। সুন্দরবনের মোট আয়তন কত? [১৫ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ ৬০১৭ বর্গ কি. মি.।

৬৪। গ্রামীণ ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা কে? [১৫ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ ড. মুহম্মদ ইউনূস।

৬৫। বাংলাদেশের কোথায় সাদা মাটি পাওয়া যায়? [১৫ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ বাংলাদেশের নেত্রকোনা জেলার বিজয়পুরে সাদা মাটি পাওয়া যায়।

৬৬। জুটন কী? [১৫ তম বিসিএস লিখিত]

উত্তরঃ৭০ ভাগ পাট ও ৩০ ভাগ তুলার মিশ্রণে তৈরি কাপর। (আবিষ্কারক মুহম্মদ সিদ্দিকুল্লাহ)

৬৭। ইরাটম কী? [১৫ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ ইরাটম এক ধরনের ধান।

৬৮। বাংলাদেশে কত সালে কোন স্থানে প্রথম চায়ের চাষ শুরু হয়? [১৫ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ ১৮৫৪ সালে সিলেটের মালনীছড়ায়।

৬৯। বাংলাদেশের জাতীয় প্রতীক কী? [১৫ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ উভয়পাশে ধানের শীষ বেষ্ঠিত পানিতে ভাসমান জাতীয় ফুল শাপলা, এর উপর পাটগাছের পরস্পর সংযুক্ত তিনটি পাতা এবং উভয়পাশে দুটি করে তারকা।

৭০। মধুপুর গড় কোন কোন জেলায় রয়েছে? [১৭ তম বিসিএস লিখিত] উত্তরঃ টাঙ্গাইল ও ময়মনসিংহ জেলায় রয়

আরো পড়ুন