1. [email protected] : jashim sarkar : jashim sarkar
  2. [email protected] : mohammad uddin : mohammad uddin
মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৩:৫০ অপরাহ্ন

রাবারের স্যান্ডেল তৈরির আইডিয়া,চাকরী না করে ইঞ্জিনিয়ারিং জ্ঞান কাজে লাগান !

আমাদের দেশের মানুষ প্রায় সারাবছরই রাবারের স্যান্ডেল ব্যবহার করে। এখনও আমাদের দেশের বেশির ভাগ মানুষ গ্রামে বাস করে। বর্ষাকালে বৃষ্টির পানিতে গ্রামের রাস্তাঘাট কর্দমাক্ত হয়ে যায়। কাদা-পানিতে চামড়া ও কাপড়ের স্যান্ডেল সহজেই নষ্ট হয়ে যায়। কিন্তু রাবারের তৈরি স্যান্ডেল সহজে নষ্ট হয় না। এজন্য গ্রামে রাবারের স্যান্ডেল খুব জনপ্রিয়। এছাড়া বর্ষাকালে শহরের মানুষও রাবারের স্যান্ডেল ব্যবহার করে। শীতকালেও কম বেশি এর চাহিদা থাকে।

রাবারের স্যান্ডেল তৈরি

আমাদের দেশে অনেক কিছু তৈরিতে রাবার ব্যবহার করা হয়। অনেক সময় রাবারের তৈরি জিনিসপত্র ব্যবহারের পর ফেলে দেওয়া হয়। গ্রামের পথে-প্রান্তরে ছড়িয়ে থাকা আবর্জনা তুল্য রাবার পুনঃ প্রক্রিয়াজাত করে রাবারের স্যান্ডেল তৈরি করা যায়। আমাদের দেশের শহর, গ্রাম সবখানেই রাবারের স্যান্ডেল খুব পরিচিত ও প্রয়োজনীয় ব্যবহার্য সামগ্রী। ধনী-গরিব সব শ্রেণীর মানুষের কাছে এর প্রচুর চাহিদা রয়েছে। রাবারের স্যান্ডেল নিত্য প্রয়োজনীয় সামগ্রী। তাই রাবারের স্যান্ডেল তৈরি করে যে কেউ নিজের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে পারেন।

বাজার সম্ভাবনা

আমাদের দেশের মানুষ প্রায় সারাবছরই রাবারের স্যান্ডেল ব্যবহার করে। এখনও আমাদের দেশের বেশির ভাগ মানুষ গ্রামে বাস করে। বর্ষাকালে বৃষ্টির পানিতে গ্রামের রাস্তাঘাট কর্দমাক্ত হয়ে যায়। কাদা-পানিতে চামড়া ও কাপড়ের স্যান্ডেল সহজেই নষ্ট হয়ে যায়। কিন্তু রাবারের তৈরি স্যান্ডেল সহজে নষ্ট হয় না। এজন্য গ্রামে রাবারের স্যান্ডেল খুব জনপ্রিয়। এছাড়া বর্ষাকালে শহরের মানুষও রাবারের স্যান্ডেল ব্যবহার করে। শীতকালেও কম বেশি এর চাহিদা থাকে।

স্থান নির্বাচন

রাবারের স্যান্ডেল উৎপাদনের জন্য কারখানা স্থাপন করতে হবে। যেখানে সড়ক বা নদী পথে মোটামুটি ভালো যোগাযোগ ব্যবস্থা আছে সে রকম জায়গায় রাবারের স্যান্ডেল তৈরির কারখানা স্থাপন করতে হবে। এছাড়া এ প্রকল্পের জন্য বিদ্যুৎ সংযোগ ব্যবস্থা আছে সে রকম এলাকায় কারখানা স্থাপন করতে হবে।

মূলধন

রাবারে স্যান্ডেল তৈরির জন্য স্থায়ী উপকরণ কিনতে প্রায় ৪১০৫০০-৪৭৫০০০ টাকার প্রয়োজন হয়। এছাড়া ২০০ জোড়া স্যান্ডেল তৈরির জন্য ৬০১০ থেকে ৬৪৬৫ টাকার প্রয়োজন হবে। কারখানা স্থাপনের সময় জমি, পজেশন ইত্যাদির জন্য আলাদা টাকার প্রয়োজন হবে। তাই ৪ থেকে ৫ জন উদ্যোক্তা এক সাথে মিলে রাবারের স্যান্ডেল তৈরির প্রকল্প শুরু করতে পারে। যদি ব্যক্তিগত পূঁজি না থাকে তাহলে মূলধন সংগ্রহের জন্য নিকট আত্মীয়স্বজন, ঋণদানকারী ব্যাংক(সোনালী ব্যাংক, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক, জনতা ব্যাংক , রূপালী ব্যাংক, অগ্রণী ব্যাংক) বা বেসরকারি প্রতিষ্ঠান (আশা , প্রশিকা, গ্রামীণ ব্যাংক, ব্রাক)-এর সাথে যোগাযোগ করা যেতে পারে। এসব সরকারি, বেসরকারি ব্যাংক ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠান (এনজিও) শর্ত সাপেক্ষে ঋণ দিয়ে থাকে।

প্রশিক্ষণ

রাবারের স্যান্ডেল তৈরির জন্য তেমন প্রশিক্ষণের প্রয়োজন নেই। তবে ব্যবসা শুরুর আগে কিছুদিন রবারের স্যান্ডেল তৈরির কারখানায় কাজ করলে কাজটা শিখে নেওয়া যাবে এবং ব্যবসার খুঁটিনাটি সম্পর্কে ধারণা পাওয়া যাবে।

রাবারের স্যান্ডেল উৎপাদন পদ্ধতি

রাবারের স্যান্ডেল তৈরির জন্য প্রথমে প্রয়োজনীয় কাঁচামাল সংগ্রহ করতে হবে।কাঁচামাল সংগ্রহের পর তা পরিশোধন করতে হবে। এরপর ইভা ক্যালসিয়াম, রাবার বেল, চায়না ক্লে, ক্যালসিয়াম ও এভি ক্যালসিয়াম মিকচার মেশিনে নিয়ে ভালোভাবে মেশাতে হবে এবং মন্ড তৈরি করতে হবে।মন্ড রোলার মেশিনে দিয়ে সরু রাবার শীট তৈরি করতে হবে এবং তা এক জায়গায় করতে হবে। সরু রাবার শীটগুলো এর পরে হাইড্রলিক প্রেসে দিয়ে পরিপূর্ণ রাবার শীট উৎপাদন করতে হবে।কাটার মেশিন দিয়ে পরিপূর্ণ রাবার শীট কেটে বিভিন্ন মাপের রাবারের স্যান্ডেল তৈরি করতে হবে।রাবার শীট কেটে বিভিন্ন মাপের রাবারের স্যান্ডেল তৈরি করে মাপ মতো ফিতা লাগাতে হবে।

সাবধানতা

রাবারের স্যান্ডেল তৈরির সময় মাপের দিকে খেয়াল রাখতে হয়। খুব বেশি বড় বা খুব ছোট মাপের স্যান্ডেল বেশি তৈরি না করাই ভালো। মোটামুটি গড় মাপের কথা চিন্তা করে রাবারের স্যান্ডেল তৈরি করতে হবে।স্যান্ডেল তৈরি কারখানার বর্জ্যপদার্থ পরিবেশের উপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে। তাই যথাযথভাবে বর্জ্য নিষ্কাশন এবং পরিবেশের যাতে কোন ক্ষতি না হয় সেই বিষয়টি খেয়াল রাখতে হবে।

স্থায়ী উপকরণগুলো একবার কিনলে অনেকদিন ধরে কাজ করা যাবে। ব্যবসার শুরুতেই এ খরচটি করতে পারলে পরবর্তীতে শুধু কাঁচামাল কিনে ব্যবসা চালিয়ে নেওয়া সম্ভব।

সচরাচর জিজ্ঞাসা

প্রশ্ন ১ : রাবারের স্যান্ডেলের চাহিদা কোথায় বেশি ?

উত্তর : শহর ও গ্রাম সবখানেই রাবারের স্যান্ডেলের চাহিদা আছে ।

প্রশ্ন ২ : কারখানার জন্য প্রয়োজনীয় স্থায়ী যন্ত্রপাতি কোথায় পাওয়া যায় ?

উত্তর : ঢাকার জুরাইন, চকবাজার ও চট্টগ্রামের সদরঘাটস্থ দারোগা হাট রোডে স্থায়ী যন্ত্রপাতি পাওয়া যায়।

প্রশ্ন ৩ : স্থায়ী যন্ত্রপাতি কিনতে কত টাকার প্রয়োজন হয় ?

উত্তর : স্থায়ী যন্ত্রপাতি কিনতে ৪১০৫০০- ৪৭৫০০ টাকার প্রয়োজন হয়।

আরো পড়ুন