1. [email protected] : jashim sarkar : jashim sarkar
  2. [email protected] : mohammad uddin : mohammad uddin
বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২, ১১:২৮ পূর্বাহ্ন

শর্ট সার্কিট নিয়ে বিস্তারিত জানুন | Short Circuit

শর্ট সার্কিট নিয়ে আজ আমরা বিস্তারিত জানবো বন্ধুরা। আমরা যারা ইলেক্ট্রিক্যাল বা ইলেক্ট্রনিক্স এর সাথে জড়িত তারা শর্ট সার্কিট এর সাথে খুব ভালভাবে পরিচিত। আমরা আজ শর্ট সার্কিটে কেমন ফল্ট হয় সেগুলোর প্রকারভেদ সহ জানার চেস্টা করবো ।

শর্ট সার্কিট নিয়ে আজকের আলোচনাসমূহঃ

১। শর্ট সার্কিট ফল্ট কাকে বলে ?

২। শর্ট সার্কিট ফল্টের প্রকারভেদ কি কি ?

৩। সিমেট্রিক্যাল ফল্ট কাকে বলে এবং এর প্রকারভেদ।

৪। আনসিমেট্রিক্যাল ফল্ট কাকে বলে এবং এর প্রকারভেদ।

৫। শর্ট সার্কিট ফল্টের কারণসমূহ কি কি ?

৬। শর্ট সার্কিট কারেন্ট নির্ধারণ করার পদ্ধতি কি কি ?

শর্ট সার্কিট ফল্ট কাকে বলে ?

কোন ইলেক্ট্রিক্যাল নেটওয়ার্ক বা সেস্টেমে এমন ফল্ট হয় যেটার কারনে এক বা একাধিক ফেজে অনেক বেশি পরিমাণ কারেন্ট প্রবাহিত হয় তখন তাকে শর্ট সার্কিট ফল্ট বা শর্ট সার্কিট বলা হয়ে থাকে।

আবার এভাবেও বলা যেতে পারে, দুই বা ততোধিক কন্ডাক্টর তাদের স্বাভাবিক পটেনশিয়াল ডিফানেন্সে চলা অবস্থায় কখনো একত্রে সংস্পর্শে আসলে সেটাকে শর্ট সার্কিট ফল্ট বলে।

শর্ট সার্কিট ফল্টের প্রকারভেদ কি কি ?

প্রধানত শর্ট সার্কিট ফল্ট দুই প্রকার হয়,

ক। সিমেট্রিক্যাল ফল্ট।

খ। আনসিমেট্রিক্যাল ফল্ট।

সিমেট্রিক্যাল ফল্ট কাকে বলে ?

বৈদ্যুতিক সিস্টেমের যে ফল্টের কারনে তিনটি ফেজের প্রত্যেকটা ফেজের মাঝেই সমপরিমান ফল্ট কারেন্ট প্রবাহিত হয়ে থাকে তাকে বলা হয় সিমেট্রিক্যাল ফল্ট।

এখানে প্রত্যেকটা ফেজের ফল্ট কারেন্টের মাঝের কৌণিক দূরত্ব সমান হয়ে থাকে। সিমেট্রিক্যাল ফল্টে প্রত্যেকটা ফেজের মাঝে ফল্ট কারেন্টের কৌণিক দূরত্ব হয় ১২০ ডিগ্রি।

সিমেট্রিক্যাল ফল্টের প্রকারভেদ

সিমেট্রিক্যাল ফল্ট দুই প্রকার হয়ে থাকে,

ক। তিনটি ফেজ একত্রে শর্ট সার্কিট।

খ। তিন ফেজ একত্রে আর্থের সাথে শর্ট সার্কিট।

আপনারা নিচের চিত্র খেয়াল করলে দেখতে পাবেন কিভাবে তিন ফেজ একত্রে শর্ট সার্কিট হচ্ছে এবং তিন ফেজ একত্রে আর্থের সাথে শর্ট সার্কিট হচ্ছে। সিমেট্রিক্যাল ফল্টে এই দুই প্রকার ফল্ট হয়ে থাকে।

আনসিমেট্রিক্যাল ফল্ট কাকে বলে ?

বৈদ্যুতিক সিস্টেমের যে ফল্টের কারনে তিনটি ফেজের প্রত্যেক ফেজের মাঝে সমপরিমান ফল্ট কারেন্ট প্রবাহিত না হয়ে এক এক ফেজে এক এক পরিমান ফল্ট কারেন্ট প্রবাহিত হয় তাকে আনসিমেট্রিক্যাল ফল্ট বলা হয়।

আনসিমেট্রিক্যাল ফল্টের প্রকারভেদ

সাধারনত আনসিমেট্রিক্যাল ফল্ট তিন ধরনের হয়। এর মাঝে আবার একই ধরনের ফল্ট দুই ভাবে সংগঠিত হয়। আপনারা নিচের চিত্রে খেয়াল করলে সেটা বুঝতে পারবেন।

ক। সিঙ্গেল লাইন টু গ্রাউন্ড ফল্ট।

খ। লাইন টু লাইন ফল্ট।

গ। ডাবল লাইন টু গ্রাউন্ড ফল্ট। ( এই ফল্ট দুই ধরনের হয়ে থাকে )

আমাদের নিচে উপস্থাপন করা চিত্রে খেয়াল করলে আপনারা আনসিমেট্রিক্যাল ফল্টের চিত্রগুলো দেখতে পাবেন। এখানে ডাবল লাইন টু গ্রাউন্ড ফল্টের দুইটি চিত্র দেখানো হয়েছে ।

শর্ট সার্কিট ফল্টের কারণসমূহ কি কি ?

লাইটনিং সার্জ।

ভোল্টেজ ড্রপ।

স্টাবিলিটির পতন বা আনব্যালেন্স

ইনসুলেশন ফেইলর, ইত্যাদি।

শর্ট সার্কিট কারেন্ট নির্ধারণ করার পদ্ধতি কি কি ?

শর্ট সার্কিট কারেন্ট নির্ধারণ করার জন্য প্রধান তিনটি পদ্ধতি রয়েছে, সেগুলো হলঃ

ক। পার ইউনিট পদ্ধতি।

খ। পার্সেন্টেজ পদ্ধতি।

গ। ওহমিক পদ্ধতি।

উপরে উল্লেখিত এই তিন উপায়েই শর্ট সার্কিট কারেন্ট নির্ধারণ করা হয়ে থাকে।

আরো পড়ুন