1. [email protected] : jashim sarkar : jashim sarkar
  2. [email protected] : mohammad uddin : mohammad uddin
বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০২:৪২ পূর্বাহ্ন

সুখী হতে চান? তাহলে এই অভ্যাসগুলো আজই ত্যাগ করুন !

একজন মানুষের ঘুমাতে কতটুকু জায়গা প্রয়োজন? অথবা বেঁচে থাকার জন্য দৈনিক স্বাস্থ্যকর খাবার খেতে কত টাকার প্রয়োজন? আমরা সাফল্যের মাপকাঠিতে যে ন্যূনতম মানদণ্ড নির্ধারণ করি, নিশ্চয়ই তার চেয়ে অনেক কম! একজন মানুষের ঘুমাতে যখন পাঁচ ফিট বাই তিন ফিট জায়গা যথেষ্ট, তখন কেন আমরা কোটি টাকা খরচ করে বিশাল অট্টালিকা নির্মাণ করি? সুস্থ থাকার জন্য অল্প দামের সবজি যখন সবচেয়ে বেশি উপকারী, তখন কেন আমরা অস্বাস্থ্যকর দামি খাবার খেয়ে অর্থ ও স্বাস্থ্য দুটোই নষ্ট করি?

সুখের জন্য দামি ব্র্যান্ডের লেটেস্ট মডেলের গাড়ি বা সুখী দাম্পত্য জীবনের জন্য ডায়মন্ডের গহনা নিশ্চয় বেশি জরুরি নয়।চলুন, জীবনকে সহজ করে দেখি। বিশাল প্রাসাদের মালিক হওয়া, বিলাসবহুল গাড়িতে চড়া, দামি গহনা পরা, অথবা জাঁকজমকপূর্ণ জীবন যাপন করা ছাড়াও সুখী হওয়ার অনেক উপায় আছে। জীবনকে যত সহজভাবে গ্রহণ করবেন, জীবন তত সুখী এবং স্বাচ্ছন্দ্যময় হয়ে উঠবে। তাছাড়া এই পৃথিবীটা অনেক বড়। পৃথিবীর পরতে পরতে লুকিয়ে আছে অপার সৌন্দর্য। বেঁচে থাকতে এই বিশাল পৃথিবীর রূপ যদি নাই দেখা হল, তবে এত দামি গাড়ি দিয়ে কী হবে?

আমাদের দৈনন্দিন জীবনযাপনে প্রাচুর্য, জিনিসপত্র, প্রত্যাশা কমিয়ে পৃথিবীটা ঘুরে ঘুরে দেখলে জীবন অনেক বেশি অর্থপূর্ণ হয়ে ওঠে। আজকের নিবন্ধে এমন কিছু মৌলিক বিষয়ের পরিবর্তন নিয়ে কথা বলবো, যা করতে পারলে জীবন যেমন সহজ এবং স্বাচ্ছন্দ্যময় হয়ে উঠবে, তেমনি পৃথিবীটা ঘুরে ঘুরে দেখার অবকাশ পাওয়া যাবে। আবার জীবন যাপনের জন্য প্রয়োজনীয় অর্থও রোজগার করা যাবে।

১. কম জিনিসপত্র

বাড়িতে ব্যবহৃত আসবাবপত্র থেকে শুরু করে বিলাসবহুল দ্রব্যের সংখ্যা কমিয়ে আনার চেষ্টা করুন। অতিরিক্ত জিনিসপত্র সামাল দেওয়ার অতিরিক্ত চাপ থেকে নিজেকে মুক্ত করুন। এমন সব জিনিস থেকে নিজের সংসারকে পুরোপুরি মুক্ত করুন, যা অতিরিক্ত জায়গা এবং অর্থ খরচ করে। যারা সফলভাবে পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে ভ্রমণ করে এবং প্রয়োজনীয় অর্থ রোজগার করে সুখী ও স্বাচ্ছন্দ্যপূর্ণ জীবনযাপন করেন, তারা অতিরিক্ত জিনিসের ঝক্কিঝামেলা থেকে সব সময় নিজেদের দূরে রাখেন।

যেমন, আপনার যদি একটি বিলাসবহুল গাড়ি থাকে, তবে নিশ্চয়ই সেই গাড়ির জন্য মোটা অংকের ইন্সুরেন্সও থাকবে। সুতরাং সব সময় এই বাড়তি ইন্সুরেন্সের অর্থ আপনাকে যোগান দিয়ে যেতে হবে। যার ফলে আপনাকে প্রয়োজনের অতিরিক্ত অর্থ রোজগার করতে হবে। তার জন্য আপনাকে ক্রমাগত মরিয়া হয়ে অর্থের পিছে ছুটতে হবে। কিন্তু আপনার যদি এই বিলাসবহুল গাড়ি না থাকে, তবে নিশ্চয়ই বাড়তি ইন্স্যুরেন্সের ঝামেলাও থাকবে না। সুতরাং কম জিনিসপত্র আপনার জীবনকে অনেক বেশি স্বাচ্ছন্দ্যময় করে তোলে, যে জীবনে আপনি ইচ্ছামত ভ্রমণ করার অবারিত সুযোগ পাবেন।

২. ছোট বাড়িতে বসবাস

জীবন যাপনের খরচ ক্রমশ বেড়েই চলেছে। নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য থেকে শুরু করে সকল পণ্যের দাম খুব দ্রুতগতিতে বাড়ছে। এ অবস্থায় একটি বিশাল বাড়িতে বসবাস করার অর্থ হলো, ইচ্ছা করে মাথায় অতিরিক্ত খরচের বোঝা নেওয়া। এক সময় বিশাল বাড়িতে একটি পরিবারের বসবাস আলাদা আভিজাত্য প্রকাশ করত। কিন্তু দ্রুত বর্ধনশীল এই শহরে এখন সেই আভিজাত্য ধরে রাখতে হলে আপনাকে খরচ করতে হবে অতিরিক্ত অর্থ।

বড় বাড়িতে বসবাস করলে, তা বিভিন্ন আসবাবপত্র দিয়ে সজ্জিত করা, ও বাড়ি রক্ষণাবেক্ষণে প্রয়োজন হবে অনেক টাকার। সুতরাং অতিরিক্ত এই চাপ মুক্ত হতে অপেক্ষাকৃত ছোট বাড়িতে বসবাস করা শুরু করুন। ছোট বাড়িতে আসবাবপত্র কম লাগে। বাড়ি রক্ষণাবেক্ষণ ব্যয়ও কম হয়। তাছাড়া অতিরিক্ত মানসিক চাপ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

৩. খরচ কমিয়ে আনা

অযথা বিলাসবহুল জীবন যাপন করে প্রতি মাসে ক্রেডিট কার্ডের ঋণ বাড়ানোর প্রয়োজন নেই।তাই জীবনকে সুখী করতে আপনার বিলাসবহুল জীবনযাত্রা পরিবর্তন করুন। কেননা বিলাসী জীবনযাপন করতে গিয়ে প্রতিনিয়ত আপনার মাথায় যে ঋণের বোঝা চেপে থাকে, তা আপনাকে নিশ্চিন্তে ঘুমাতে দেয় না।

সুতরাং আপনার বিলাসবহুল জীবনযাপনের খরচ কমিয়ে এনে প্রতি মাসের ঋণ শোধ করার পরও কিছু বাড়তি টাকা হাতে রাখুন এবং সুযোগ বুঝে দূরে কোথাও ভ্রমণে বেরিয়ে পড়ুন। আপনি চাইলে অতিরিক্ত ঋণ একবারে কমিয়ে আনতে কিছু বাড়তি জিনিসপত্র বিক্রি করে দিতে পারেন। বিশেষ দিবস, ভ্রমণের উপযুক্ত মৌসুম বা বড় কোনো ছুটি কোনোভাবেই উপেক্ষা করা উচিত হবে না। সুযোগ পেলেই দূরে কোথাও ভ্রমণে বেরিয়ে পড়ুন। আর জীবনের সত্যিকারের অর্থ অনুধাবন করুন।

৪. প্রত্যাশার লাগাম টেনে ধরা

মানুষ স্বপ্ন দেখতে ভালোবাসে। তাই প্রতিনিয়ত মানুষ নতুন নতুন স্বপ্ন দেখে। আর এই স্বপ্নের সিংহভাগ জুড়ে থাকে বিলাসবহুল জীবনযাপনের প্রত্যাশা! আমরা সবসময় ভোক্তার মতো জীবন যাপন করি, এবং ক্রমাগত নতুন নতুন জিনিসপত্র, সুযোগসুবিধা ভোগ করার আশায় থাকি।

সুখী হতে এই প্রবণতা ত্যাগ করতে হবে। নিজের অহেতুক প্রত্যাশার লাগাম টেনে ধরতে হবে। যেমন অট্টালিকার মত বিশাল বড় বাড়ি, লেটেস্ট মডেলের দামি গাড়ি, দামি ব্রান্ডের পারফিউম; এসব স্বপ্ন ছেড়ে নিজের যা সম্পদ আছে তাতেই সুখী হওয়ার চেষ্টা করতে হবে। নিজের অর্জিত অর্থে ন্যূনতম প্রয়োজন মিটিয়ে সুখী হওয়া অনেকটা শিল্পের মতো। এই শিল্প যারা জানে, তারা সবসময় সুখী জীবনযাপন করতে পারে। সুতরাং নিজের প্রত্যাশার লাগাম টেনে ধরুন এবং সুখী ও অর্থপূর্ণ জীবন যাপন করুন।

বিলাসবহুল জীবনের মায়া ত্যাগ করা, দামি গাড়িবাড়ির লোভ প্রশমন করা, এবং আপনজনদের সাথে সম্পর্ক আরো দৃঢ় করার মধ্যেই লুকিয়ে আছে জীবনের পরম শান্তি। সুতরাং প্রত্যাশার পরিধি সংক্ষিপ্ত করুন আর দু’চোখ ভরে পৃথিবী দেখতে বেরিয়ে পড়ুন। সুখ ও স্বাচ্ছন্দ্যে ভরে উঠুক আপনার জীবন।

আরো পড়ুন